আফগানিস্তানের সাথে দ্বিতীয় ওয়ানডে ও জিততে পারল না বাংলাদেশ।

স্পোর্টস নিউজ ডেস্ক
0
98
বাংলাদেশ আফগানিস্তান

বাংলাদেশ আফগানিস্তানের সাথে দ্বিতীয় ওয়ানডে আন্তর্জাতিক ম্যাচে ও জিততে পারল না। ১৪২ রানে বিশাল ব্যবধানে হারলো তারা। নিজেদের মাঠে কোনো প্রতিদ্বন্ধিতা ছাড়া হরে গেল। বাংলাদেশের খেলা দেখে মনে হচ্ছিলোনা বা কোনো আনন্দই ছিলোনা তাদের খেলায়। প্লেয়াররা কেমন যেন মলিন। মানুষিক দিক থেকে তারা অনেক প্রেসারে আছে। প্রথম ওয়ানডে তে তারা বৃষ্টির আইনে মাত্র ১৭ রানে পরাজিত হয়েছিল।

চট্রগ্রাম স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের অধিনায়ক লিটন দাস টসে জিতে সফরত আফগানিস্তানকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায়। নির্ধারিত ৫০ ওভারে তারা দুটি সেঞ্চুরি সহ ৯ উইকেটে ৩৩১ রান তুলে নেয়। সেঞ্চুরি দুটি করেন ২১ বছর বয়সী ডানহাতি ব্যাটসম্যান রহমানুল্লাহ গুরবাজ ১২৫ বলে ১৪৫ রান করে আউট হয়। দ্বিতীয় সেঞ্চুরিটি আসে২১ বছর বয়সী ইব্রাহিম জাদরান ব্যাট থেকে ১১৯ বল খেলে ১০০ রান করে আউট হয়ে যায়। এই দুই ব্যাটসম্যান রীতিমতো ভালো বীরত্বের পরিচয় দিয়ে খেলে গেছে। ওপেনিং এ এই জুটি ২৫৬ করে। বাংলাদেশের বোলিং লাইনআপ ভাল ছিলোনা বলে তারা বেক্তিগত দুটি সেঞ্চুরি করে নিয়েছে।

আফগানিস্তানের বিশাল রান তারা করতে গিয়ে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা আসা যাওয়ার মধ্যে ছিল দেখার মতো। ব্যাটসম্যানদের আসা যাওয়ার বিষয়টা আফগানিস্তানের প্লেয়াররা খুব আনন্দের মধ্যেই দেখছে। কারণ তারা জানে যে, ম্যাচ তাদের আয়ত্বের মধ্যে আছে। একমাত্র মুশফিকুর রহিম ছাড়া আর কোনো ব্যাটসম্যান আফগানিস্তানের বোলিংয়ের কাছে দাঁড়াতে পারেনি।

একটি পর্যায়ে বাংলাদেশের রান দাঁড়ায় ১৮.৩ বলে ৭২ রানে ৬ উইকেটের পতন।
কিছুটা প্রভাববিস্তার করে খেলে মুশফিক ও মেহেদি হাসান মিরাজ। তবে ম্যাচ জিতার আশা ছিলোনা তারা শুধু চেয়েছিলো একটু সম্মানজনক স্থানে বাংলাদেশকে রাখতে। মেহেদি হাসান মিরাজ আউট হবার পর শুধু অপেক্ষায় ছিল স্টেডিয়ামের দর্শকরা বের হবার জন্য ১৮৯ রানে সব কয়টি উইকেট পতনের পর শেষ হলো বাংলাদেশের দ্বিতীয় পরাজয়। বাংলাদেশের পক্ষে মুশফিকুর রহিম ৬৯,
সাকিব আল হাসান ২৫,মেহেদি হাসান মিরাজ ২৫ ছাড়া আর তেমন কেউ ভালো স্কোর করতে পারেনি।
ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হয়েছেন আফগানিস্তানের রহমানুল্লাহ গুরবাজ।

তিন ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি হবে ১১ জুলাই দুপুর দুটায় জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম

দুদলে যারা খেলেছে:
আফগানিস্তান স্কোয়াডে যারা খেলছেন রহমানুল্লাহ গুরবাজ (উইকেটরক্ষক), ইব্রাহিম জাদরান, রহমত শাহ, হাশমাতুল্লাহ শাহিদি (অধিনায়ক), মোহাম্মদ নবী, নাজিবুল্লাহ জাদরান, রশিদ খান, ফজলহক ফারুকী, মুজিব উর রহমান, আজমতুল্লাহ ওমরজাই, মোহাম্মদ সেলিম সাফি।

বাংলাদেশ স্কোয়াডে যারা খেলছেন লিটন দাস (অধিনায়ক), মোহাম্মদ নাইম, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাকিব আল হাসান, তৌহিদ হৃদয়, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), আফিফ হোসেন, মেহেদি হাসান মিরাজ, হাসান মাহমুদ, এবাদত হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান।

Leave a reply